[View Page in English]

মোটরসাইকেলঃ সময়ের প্রয়োজনে সেরা যানবাহন

আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় বাহনগুলির অন্যতম হচ্ছে মটর বাইক বা মটরসাইকেল। দৈনন্দিন জীবনে ব্যক্তিগত ট্রান্সপোর্টেশনের একটি অন্যতম সহজলভ্য মাধ্যম এখন মোটর সাইকেল। প্রয়োজনীয়তার হার সুউচ্চ পর্যায়ে থাকায় দেশে এখন মটর সাইকেলের চাহিদা প্রতি বছর বেড়েই চলেছে। আর দেশের বাজারে তো ইদানিং বিভিন্ন ব্র্যান্ডের অত্যাধুনিক মটরসাইকেলের মডেল ক্রমশই যুক্ত হচ্ছে। সেক্ষেত্রে দেশের অফলাইন মার্কেটের পাশাপাশি এখন অনলাইন শপগুলোতেও ক্রেতাদের উপস্থিতি বেশ লক্ষণীয় হারে বাড়তে শুরু করেছে। প্রতিদিন ট্রাফিক জ্যামে বসে থাকার হাত থেকে মুক্তি পেতে চাইলে আধুনিক নগর জীবনে বাইক বা মোটর সাইকেল এর কোনো বিকল্প নেই। অন্যান্য যানবাহনের তুলনায় অনেক কম জায়গা লাগে বলে মোটর সাইকেল চালানোর নিয়ম কিংবা কিভাবে মটরসাইকেল চালাতে হয় জানলে খুব সহজেই আপনি রাস্তায় বাস-গাড়ির এই জটলার ফাঁক গলে দ্রুত চলে যেতে পারেন নিজের গন্তব্যে। একটি মোটর সাইকেল লাইসেন্স থাকলে আর মোটরসাইকেল টিপসগুলো ভালভাবে জানা থাকলে বাইকটি আপনাকে শুধু জ্যাম থেকেই বাঁচাবে না, বরং প্রতিদিনকার যাতায়াত খরচ কমিয়ে মুক্তি দেবে অনেক উটকো ঝামেলার হাত থেকে। তাই কিস্তিতে মোটর সাইকেল কেনার কথা ভাবলে সঠিক সময় এখনই, দেশের সেরা অনলাইন শপিং মল দারাজ বাংলাদেশ (daraz.com.bd) দিচ্ছে সবচেয়ে সহজ পদ্ধতিতে বাইক কেনার দারুণ সুবিধা।

জনপ্রিয় মটর সাইকেল এর নতুন কালেকশন ২০১৯ - সাশ্রয়ী বাইকের দাম সহ কিস্তিতে বাইক

দারাজ নিয়ে এল অনলাইনে মটর সাইকেল এর সেরা কালেকশন। দারাজ অনলাইন শপে ভিজিট করে আপনি সহজেই জানতে পারবেন প্রতিটি বাইকের দাম, যেখানে রয়েছে মোটর সাইকেল ছবি ও বিস্তারিত তথ্য। তাই মোটর সাইকেল ডিজাইন দেখে ও বেস্ট বাইক স্পেসিফিকেশন জেনে দারাজ থেকে আপনি সহজেই পছন্দ করতে পারবেন আপনার বাজেট অনুযায়ী সেরা মোটরসাইকেল মডেলটি। দারাজে আপনি পাচ্ছেন দেশি-বিদেশী সেরা মটর বাইকের সর্বোচ্চ কালেকশন। দারাজে রয়েছে লিফান, কিওয়ে, ভিক্টর, হিরো, কাওয়াসাকি সহ বিভিন্ন নামী ব্র্যান্ডের মোটর সাইকেল। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এই অনলাইন শপে এখন এসব স্বনামধন্য ব্র্যান্ডের মটর সাইকেল দারুন ছাড়ে পাওয়া যাচ্ছে। যেখানে আরও জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল বিশেষ করে সুজুকি মটরসাইকেল সহ ইয়ামাহা মটরসাইকেল, বাজাজ মটরসাইকেল, টিভিএস মটর সাইকেল বা টি ভি এস মোটরসাইকেল, হিরো মটরসাইকেল ও হোন্ডা মটরসাইকেল বেশ বিস্তৃত পরিসরেই থাকছে। এছাড়াও ফেজার মটরসাইকেল, এপাচি মটরসাইকেল, পালসার মটরসাইকেল ও ওয়ালটন মটরসাইকেল এখন দারাজ অনলাইন শপ থেকে কিনতে পারছেন বেশ সুলভ দাম দিয়েই। এসব ব্র্যান্ডের বিভিন্ন লেটেস্ট মটর সাইকেল ও বাইক এর ছবি (মোটর সাইকেল এর ছবি) সরাসরি দেখা ছাড়াও দারাজ থেকে এখন এক নজরে দেখে নিতে পারেন বিভিন্ন মটর সাইকেল পার্টস একেবারে সাশ্রয়ী মূল্যে। তাই লোকাল মার্কেটে ঘুরে দরদামের ঝামেলা সহ বিভিন্ন ভোগান্তিকে এখন বিদায় জানাতে পারেন অনায়াসেই। তবে সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে বারো মাসে বিনা ইন্টারেস্টে ইএমআই সহ কিস্তিতে মোটরসাইকেল ক্রয় এর সুবিধা, এর ফলে বাইকের দাম কমে যাবে বেশ। যার ফলে দারাজে আপনার মটরসাইকেল শপিং আরও বেশি সহজ হয়ে উঠবে।

মোটরসাইকেলের সেরা ব্র্যান্ড সমূহ একনজরে

সুজুকি জিক্সার মোটরসাইকেল | বাজাজ পালসার বাইক | টিভিএস(tvs) মোটর সাইকেল | হোন্ডা মটর সাইকেল | রানার মোটর সাইকেল | কিওয়ে মটর সাইকেল | লিফান মোটরসাইকেল | ভিক্টর-আর মটরসাইকেল

কিস্তিতে সাশ্রয়ী মটর সাইকেলের দাম - বাজেট দামের সাথেই সেরা ডিসকাউন্ট

সাশ্রয়ী মূল্যে অনলাইনে মোটরসাইকেল কিনতে চাইছেন? কম দামে মোটরসাইকেল ও কম দামের মোটর সাইকেল - দুটো আলাদা ব্যাপার। তাই দারাজের মোটর সাইকেল কালেকশন থেকে মোটর সাইকেলের দাম ও বিস্তারিত সেরা মোটর সাইকেল স্পেসিফিকেশন মিলিয়ে অপেক্ষাকৃত কম দামে মোটর সাইকেল ২০১৯ সালের মূল্য অনুসারে বেছে নিন আপনার মোটর বাইকটি। এখন দারাজে পাচ্ছেন মোটর সাইকেল এর দাম ২০১৯ সাল অনুযায়ী মূল্যতালিকা, যেখানে থাকছে সবচেয়ে কম মূল্য রেটে বাইক বেছে নেওয়ার সূবর্ণ সুযোগ। মটরসাইকেল কেনার আগে সবচেয়ে বড় বিপত্তি বাধে দাম নিয়ে। এত টাকা একসাথে সংগ্রহ করাটা একজন মধ্যবিত্ত বাঙালির পক্ষে কিছুটা কঠিনই বলা চলে। তাই বাইকের দাম বেশি হওয়ায় অনেকেই মোটর সাইকেল ঋণ এর খোঁজ করেন। তবে সেরা বাইক কেনার জন্য কিংবা মোটরসাইকেলের দাম কত (বাংলাদেশ মোটর সাইকেল দাম) জানতে এখন আর আপনাকে মোটর সাইকেল বাজার বা মোটরসাইকেল শোরুম এ দৌড়াদৌড়ি করতে হবে না। তাদের স্বপ্নপূরণ করতে বাংলাদেশের বৃহত্তম অনলাইন শপ দারাজ নিয়ে এলো ১২ মাসে ০% ইন্টারেস্টে কিস্তিতে মোটরসাইকেল কেনার সহজ ও দারুণ ইএমআই সুবিধা। এর ফলে যে কেউ সাধ্য নিয়ে খুব বেশি দুশ্চিন্তা না করেই সহজ কিস্তিতে সাধের মোটর সাইকেলটি কিনতে পারবেন। দারাজের এই ইএমআই সুবিধাটি পাওয়া এখন খুবই সহজসাধ্য একটা ব্যাপার। আর ০% ইন্টারেস্টের কারনে মাসিক কিস্তিতে ইলেকট্রিক বাইক ও মোটর সাইকেল এর মূল মূল্যের বাইরে আপনাকে কোনো রূপ বাড়তি টাকাও গুনতে হবে না। এখন মটর সাইকেল এর দাম ২০১৯ সাল অনুসারে দারাজে ক্রেতাদের হাতের নাগালের মধ্যেই থাকছে, অনলাইনে মটর সাইকেলের দাম (২০১৯) দেখে মোটর সাইকেল ও স্কুটারের দাম যাচাই করে নিতে পারবেন খুব সহজেই। এখন মোটরসাইকেল যন্ত্রাংশ বা মোটরসাইকেল পার্টস এর দাম একদম সহজ মূল্য পরিসরে উপভোগ করা কেবল দারাজেই সম্ভব। আর তাই সুলভ মোটরসাইকেল এর দাম বাড়তি ডিসকাউন্টে পেতে বেছে নিতে পারেন শুধুমাত্র দারাজকেই। আকর্ষণীয় মাত্রার বিভিন্ন ধরণের ভাউচার কোডের পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি মাত্রায় ডিসকাউন্ট অফার এখন লুফে নিতে পারবেন কেবল মাত্র দারাজ অনলাইন মোটরসাইকেল শপ থেকেই। এছাড়া সম্পূর্ণ ফ্রি(অফার অনুসারে) অথবা একেবারে কম পরিসরে মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি (মটর সাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি ২০১৯) উপভোগের সুযোগ এখন শুধুমাত্র দারাজেই থাকছে। এজন্য দারাজ অফিশিয়াল ওয়েবসাইট (daraz.com.bd) ব্রাউজ করে কিংবা দারাজ মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করে যাবতীয় প্রয়োজনীয় তথ্যাদি জেনে নিতে পারেন। দারাজ অনলাইন মটরসাইকেল শপ থেকে মোটরসাইকেল কিনে নিয়ে এখন সেরা অনলাইন শপিং -এর সাবলীল অভিজ্ঞতা উপভোগ করতে পারেন একদম নিশ্চিন্তে ঘরে বসেই।

মোটর সাইকেলের প্রয়োজনীয় পার্টস ও সরঞ্জাম

বর্তমানে দারাজে থাকছে বিভিন্ন মোটর সাইকেল এক্সেসরিজ বিশেষ করে হেলমেট, মাডগার্ড, হ্যান্ড গ্লাভস, ফেস মাস্ক, বাইক গগল, রেইনকোট, বডি ভেস্ট গার্ড, মটর সাইকেল চুরি প্রতিরোধী ডিস্ক লক, ডিজিটাল পাসওয়ার্ড লক, এলার্ম লক এবং মোটর সাইকেল হ্যান্ডলার সহ মোটর সাইকেল চালানোর আরো অনেক দরকারী উপকরণ। মোটরসাইকেল এর সুবিধার তুলনায় মোটর সাইকেল এর সমস্যা অনেক অনেক কম। ঠিকঠাক যত্ন নিলে ও নিয়মিত সার্ভিসিং করালে মোটর সাইকেলের যন্ত্রাংশ বা মোটর সাইকেল এর পার্টস খুব বেশি ঝামেলা করে না। তাছাড়া ভালো মোটর সাইকেল মেরামত ছাড়াই দীর্ঘদিন সার্ভিস দিতে সক্ষম। যেহেতু বাইকটি দীর্ঘদিনের জন্য আপনার সঙ্গী হবে, তাই মোটর সাইকেল কিনতে চাইলে দেখেশুনে কেনাটাই ভালো। দারাজের কল্যাণে এখন আপনি চাইলেই পছন্দের সেরা বাইক অথবা স্কুটার এসে হাজির হবে আপনার আপন ঠিকানায়। তবে ডিসকাউন্ট অফার ও ভাউচার কোড সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করতে পারেন দারাজ অফিশিয়াল ওয়েবসাইট(Daraz.com.bd) অথবা দারাজ অ্যাপে যেকোন সময়েই।

হেলমেট ব্যবহার করে নির্ধারিত নিয়ম মেনে যদি স্বাভাবিক গতিতে মোটরসাইকেল চালান,
অনেকাংশেই কমে যাবে দূর্ঘটনার ঝুঁকি, বাঁচবে মূল্যবান জীবন।
আপনার নিরাপত্তা আপনার হাতেই।

এছাড়াও কিনে নিতে পারেনঃ