[Vew Page in English]

ওয়াশিং মেশিন - বাংলাদেশে কাপড় ধোয়ার সেরা যন্ত্র অনলাইনে

ওয়াশিং মেশিন হল বর্তমান সময়ের প্রতিটি আধুনিক পরিবারের জন্য অতি প্রয়োজনীয় হোম অ্যাপ্লায়েন্স। জীবনযাত্রাকে অনেক বেশি সাবলীল করতেই এসেছে বিভিন্ন ধরণের ওয়াশিং মেশিন। বাসার লন্ড্রি কার্যক্রমকে এখন ওয়াশিং মেশিন করেছে অনেক বেশি সহজ। সময়ের পরিক্রমায় ধীরে ধীরে উন্নত থেকে উন্নততর হচ্ছে ওয়াশিং মেশিন -এর প্রযুক্তি। দারাজ বাংলাদেশে আছে নানা ফিচার ও ডিজাইনসমৃদ্ধ সেরা ব্র্যান্ডের সেরা ওয়াশিং মেশিন। দারাজের বৈচিত্র্যময় ওয়াশিং মেশিন -এর বিশাল সংগ্রহশালা থেকে খুঁজে নিতে পারেন আপনার পছন্দের ওয়াশিং মেশিন অনলাইনে এক নিমিষেই। ওয়াশিং মেশিনের দাম কত, ওয়াশিং মেশিন কোথায় পাব? এসব চিন্তা থেকে মুক্তি পেতে এখনই চেক করুন সাশ্রয়ী ওয়াসিং মেশিনের দাম দারাজ অনলাইন শপে। ক্রেতাদের সুবিধার স্বার্থে এখন কিস্তিতে ওয়াশিং মেশিন কেনার সুবর্ণ সুযোগ থাকছে দারাজে।

বাংলাদেশের সেরা ওয়াশিং মেশিন ব্র্যান্ডসমূহ
এলজি(lg) ওয়াশিং মেশিন | স্যামসাং(samsung) ওয়াশিং মেশিন | প্যানাসনিক ওয়াশিং মেশিন | সিঙ্গার(singer) ওয়াশিং মেশিন | ওয়ালটন(walton) ওয়াশিং মেশিন | শার্প(sharp) ওয়াশিং মেশিন | তোশিবা ওয়াশিং মেশিন | ভিশন(vision) ওয়াশিং মেশিন

ওয়াশিং মেশিন - বিভিন্ন প্রকারভেদ

কাপড় পরিষ্কারের জন্য দারাজে রয়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের নানান ধরনের কাপড় ধোয়ার যন্ত্র। কার্যক্ষমতা ও প্রকারভেদে মেশিনগুলোর দামে কিছুটা তারতম্য থাকলেও, এসব ওয়াশিং মেশিনের দাম অনেকটাই সাশ্রয়ী। দারাজে সাধারণত তিন ধরনের ওয়াশিং মেশিন পাওয়া যায়।

  • অটো ওয়াশিং মেশিন
  • সেমি অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিন

পোর্টেবল ওয়াশিং মেশিন
কাপড় অনুযায়ী প্রয়োজন মতো পানি অটোমেটিক মেশিন নিজেই নিয়ে নেয়। ধোয়া শেষে কাপড় সম্পূর্ণ শুকনা করে দেয়। ফলে কাপড় শুকানোর জন্য বাড়তি ঝামেলার প্রয়োজন হয় না। সেমি অটোমেটিক মেশিন -এ পানির পরিমাণ নির্দিষ্ট করে দিতে হয়। ধোয়ার পর আধা শুকনা করে দেয়। তাই পুরা শুকাতে কাপড় মেলে দিতে হয়। আর ম্যানুয়াল মেশিনে পানি নিজে ঢালতে হয় এবং ধোয়ার পর কাপড় শুকানোর জন্য বাইরে মেলতে হয়। কারণ ভেজা কাপড় ভেজাই থাকে। অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিন ছাড়া অন্য মেশিনগুলোতে বিদ্যুত খরচ খুবই কম।

ওয়াশিং মেশিন কেনার আগে যে বিষয়গুলো খেয়াল করবেন

ওয়াশিং মেশিন - ড্রাম সাইজ
ওয়াশিং মেশিন কেনার আগে প্রথম লক্ষণীয় বিষয় হল ড্রাম সাইজ। আপনার পরিবারের চাহিদা মোতাবেক এবং কি ধরণের কাপড়ের জন্য ব্যবহার করবেন, তার উপর বিষয়টি নির্ভরশীল। বড় ড্রাম ব্যবহারে শুধু যে আপনি বেশী কাপড় ধুতে পারবেন তাই না, এতে আপনি বড় ধরনের কম্বল কিংবা কাথা ধোয়ার কাজেও ব্যবহার করতে পারবেন। মূলত ছোট ড্রাম সাইজের চেয়ে বড় ড্রাম সাইজের অনেক কার্যকর।

ওয়াশিং মেশিনের স্পিন স্পীড
এটি মূলত নিশ্চিত করে কত তাড়াতাড়ি আপনার ওয়াশিং মেশিনের ড্রামটি ঘুরবে। যত তাড়াতাড়ি সময় এটি ঘুরবে তত তাড়াতাড়ি ওয়াশিং মেশিনের কাজটি সম্পন্ন হবে। সাধারণত ওয়াশিং মেশিনের স্পিন স্পিড থাকে ১১০০ আরএমপির কাছাকাছি। ভালো ফলাফল পাবার জন্য ১৪০০ আরএমপি কিংবা ১৬০০ আরএমপি মেশিন বেশী উপযোগী হবে।

ভালো ওয়াশিং মেশিনের শক্তি ক্ষরণ
ওয়াশিং মেশিন কেনার আগে আর একটা জরুরী লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে কত কম শক্তি ক্ষরণ করছে। প্রত্যেক ওয়াশিং মেশিনের গায়ে একটা শক্তিমাত্রা লেখা থাকে। শক্তিমাত্রাটা সাধারণত A থেকে A+++ পর্যন্ত হয়ে থাকে। শক্তিমাত্রা যদি A+++ হয়, তাহলে ওয়াশিং মেশিন সবচেয়ে কম শক্তি ক্ষরণ করবে। এর থেকে মাত্রাটা যত কমতে থাকবে, তত বেশী এর শক্তি ক্ষরণ হবে।

ওয়াশিং মেশিনের বিশেষ ফিচার
সাধারণত প্রত্যেক ওয়াশিং মেশিন প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের কিছু বিশেষ ধরনের ফিচার থাকে। উদাহরণস্বরুপ, স্যামসাং অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিন -এর ইকোবাবল প্রযুক্তি ডিটারজেন্ট দূরীভূত করে পানি এবং বাতাস ব্যবহার করে, যেটি বাবল তৈরি করে যা কাপড় দ্রুত পরিষ্কার করে। তাই কেনার পূর্বে আপনি যে ওয়াশিং মেশিন কিনতে চাচ্ছেন, সেটির কোন বিশেষ ফিচার আছে কিনা জেনে নিন।

ওয়াশিং মেশিনের ওয়াশ মুড

ওয়াশিং মেশিন কেনার আগে দেখে নিতে হবে, আপনি যে ওয়াশিং মেশিনটি কিনতে চাচ্ছেন সেটিতে আপনার চাহিদা মোতাবেক ওয়াশ মুড আছে কিনা। যেমন উলমার্ক সার্টিফাইড ওয়াশিং মেশিনে উলের কাপড় ধোয়া যাবে। কিছু কিছু ওয়াশিং মেশিনে আপনি পাবেন বিশেষ সিল্ক মুড। যেমন হ্যান্ড ওয়াশ মুড আপনার অনেক শারীরিক পরিশ্রমকে কমিয়ে দিবে বহুগুণে।

ওয়াশিং মেশিনের ডিসপ্লে সাইজ এবং সহজ ব্যবহার

প্রতিনিয়ত ওয়াশিং মেশিন ব্যবহার অনেক জটিল হয়ে যাচ্ছে খুব বেশী ফিচার থাকার কারণে। কেনার আগেই ভালভাবে দেখে নেয়া প্রয়োজন ওয়াশিং মেশিন টি সহজে ব্যবহারযোগ্য কিনা। ভাল ওয়াশিং মেশিন ব্যবহার করাও বেশ সহজ।

ওয়াশিং মেশিন - গরম ও ঠান্ডা পানির সংযোগ

কিছু ওয়াশিং মেশিনকে সঠিকভাবে চালনা করতে ঠান্ডা ও গরম দুই ধরনের পানিরই প্রয়োজন হয়, অথবা আপনি যদি ঠান্ডা পানির সাথে গরম পানি মেশানোর ব্যবস্থা করতে চান তাহলে, একটি বিশেষ কানেক্টর অথবা সিলিং ক্যাপের প্রয়োজন হতে পারে। আপনি যদি শুধুমাত্র ঠান্ডা পানি মিশাতে চান, তাহলে হিটার সম্পন্ন মেশিন (শুধুমাত্র ফ্রন্ট লোডার) আপনার জন্য বিশেষভাবে প্রয়োজন হবে। দ্বৈত সংযোগের মডেলের জন্য অনেক প্রস্তুতকারক প্রতিষ্টান সর্বোচ্চ গরম পানি ডেলিভারি পদ্ধতির চেয়ে সর্বাপেক্ষা নিচু তাপমাত্রা পদ্ধতির সুপারিশ করে - বিশেষত গরম পানির সোলার সিস্টেম। গরম পানির কারণে দাগের সৃষ্টি হয়, তাই ঠান্ডা পানি ভর্তি করার পর তা ধীরে ধীরে প্রয়োজনীয় মাত্রায় গরম হলে তা দাগ উঠা থেকে বিরত রাখে। কিন্তু যদি একটি দ্বৈত সংযোগের ওয়াশার ভালভাবে ডিজাইন করা হয়, এটি প্রথমে ঠান্ডা থাকে তারপর গরম পানি যোগ করে।

অনলাইনে খুঁজে নিন সেরা ওয়াশিং মেশিন ডিল

দারাজ বাংলাদেশ থেকে অনলাইনে খুব সহজেই কেনা যাবে এলজি, স্যামসাং, প্যানাসনিক, সিঙ্গার প্রভৃতি জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের ভালো ভালো ওয়াশিং মেশিন(washing machine)। বাংলাদেশে ওয়াশিং মেশিনের দাম সবচেয়ে সাশ্রয়ী এখন দারাজ বাংলাদেশে(daraz.com.bd)। দারাজের ওয়াশিং মেশিন ক্যাটেগরিতে অথবা সার্চ বক্স থেকে খুঁজে নিন আপনার পছন্দের সেরা ওয়াশিং মেশিন টি। আর অনলাইনে অর্ডার করে বাসায় বসেই উপভোগ সেরা অনলাইন শপিং -এর দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা বাংলাদেশেই। ম্যানুয়াল দেখে এখনই জেনে নিন ওয়াশিং মেশিন ব্যবহারের নিয়ম এবং ওয়াশিং মেশিনে কাপড় ধোয়ার পদ্ধতি।

এছাড়াও দেখুনঃ ফ্রিজ | ব্লেন্ডার | সেলাই মেশিন